মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

কার্যবিবরণী ও গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার       

উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়                                                                   

রামগঞ্জ, লক্ষ্মীপুর।                                                                                                                                                                                                                           

 

রামগঞ্জ উপজেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির ফেব্রুয়ারী/২০১৬ মাসের সভার কার্যবিবরণী              

সভাপতি                                      ঃ         জনাব কাজী মাহবুবুল আলম          

                        উপজেলা নির্বাহী অফিসার, রামগঞ্জ, লক্ষ্মীপুর।   

সভার তারিখ ও সময়                        ঃ       ০৪/০২/২০১৪ খ্রিঃ, বেলা-১১.০০ ঘটিকা      

সভার স্থান                                    ঃ         উপজেলা পরিষদ মিলনায়তন, রামগঞ্জ                      

সভায় উপস্থিত সম্মানিত সদস্যবৃন্দের তালিকাঃ পরিশিষ্ট -‘ক ’                      

            সভাপতি সভায় উপস্থিত সদস্যদের স্বাগত জানিয়ে সভার কাজ শুরম্ন করেন। সভার প্রারম্ভে বিগত সভার কার্যবিবরণী পাঠ করা হয়। উপস্থিত সদস্যদের আপত্তি না থাকায় বিগত সভার কার্যবিবরণী সর্বসম্মতিক্রমে অনুমোদিত হয়। অতপর আলোচ্যসূচী মোতাবেক আলোচনা ও সিদ্ধামত্ম গৃহীত হয়।  

(১)      জনাব  এ কে এম আবদুল করিম, চেয়ারম্যান, ১ নং কাঞ্চনপুর ইউনিয়ন পরিষদ তার বক্তব্যে বলেন যে, দীর্ঘ র্বছর পর আওয়ামীলীগের পÿ থেকে নৌকা প্রতীক নিয়ে রামগঞ্জ উপজেলায় সংসদ সদস্য পদে জয় লাভ করায় তিনি গর্ববোধ করেছেন। তাহার এলাকায় আইনশৃংখলা সুষ্ঠু রয়েছে । 

 

(২)        জনাব আকবর হোসেন মাহাবুব, চেয়ারম্যান, ২নং নোয়াগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ তার বক্তব্যে বলেন, নির্বাচন সময়ে কিছু দুর্ঘটনা ঘটেছে। তবে বর্তমানে আইনশৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। রামগঞ্জ উপজেলায় সদ্য জয়লাভ করা সংসদ সদস্যকে তিনি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

 

(৩)        জনাব মোঃ নুরম্নল হুদা (খোকন) চেয়ারম্যান ৩নং ভাদুর ইউনিয়ন পরিষদ তার বক্তব্যে বলেন, তাঁর ইউনিয়নের বর্তমান আইনশৃংখলা পরিস্থিতি মোটামুটি ভাল। রামগঞ্জ উপজেলায় সদ্য জয়লাভ করা সংসদ সদস্যকে তিনি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

(৪)        জনাব অলি উল্যাহ, চেয়ারম্যান,০৪ নং ইছাপুর ইউনিয়ন  তার বক্তব্যে বলেন, যে তার এলাকায় কিছু সন্ত্রাসী রয়েছে যার কারনে মানুষ আতংকিত। মাননীয় এমপি মহোদয় সদ্য জয়লাভ করায় তিনি আমত্মরিকভাবে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।          

৫)        জনাব মোঃ নুরম্নল ইসলাম, চেয়ারম্যান, ৫নং চন্ডীপুর ইউনিয়ন পরিষদ তাঁর বক্তব্যে বলেন, তার ইউনিয়নের বর্তমান আইন শৃংখলা   পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। তবে একজন দূর্ধর্ষ সন্ত্রীকে কেন্দ্র করে তার  এলাকায় আইনশৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রেনের বাহিরে চলে যাওয়ার উপাক্রম। সম্প্রতি রামগঞ্জ উপজেলায় নৌকা প্রতিক নিয়ে সদ্য জয়লাভ করায় মাননীয় এমপি মহোদয়কে তিনি্ আমত্মরিকভাবে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।    

 

৬)         জনাব মোঃ মফিজ উল্যা ৬ নং লামচর, তাঁর বক্তব্যে বলেন যে তার ইউনিয়নে আইন শৃংখলা পরিস্থিতি মোটামুটি ভাল। তবে মাদকের ব্যবহার এলাকায় ছড়িয়ে পড়েছে। তাহাছাড়া অন্যান্য কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে চলছে।

 

৭)          জনাব শেখ মোঃ মাহবুবুর রহমান (বাহার), চেয়ারম্যান, ৭নং দরবেশপুর ইউনিয়ন পরিষদ তাঁর বক্তব্যে বলেন যে তার এলাকায়  আইন শৃংখলা পরিস্থিতি আগের চেয়ে অনেক ভাল। তিনি সদ্য নৌকা প্রতিক নিয়ে জয়লাভ করা মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব এম এ আউয়াল মহোদয়কে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। রামগঞ্জের উন্নয়ন যেন সমহারে বন্টন হয় তিনি সভায় আলোকপাত করেন। তিনি আরো বলেন যে তার এলাকায় বিগত দিনের তুলনায় ডাকাতের সংখ্যা কম। ২/১ টি বিচ্ছিন্ন ডাকাতীর ঘটনা ঘটেছে। তবে এর মধ্যে তিনি অসুস্থ ছিলেন বলে তিনি সভাকে জানান। তিনি আরো জানান যে আমাদের গ্রামে যদি উঠান বৈঠক/সালিশ না হতো তাহলে আরো অনেক মামলা হতো।   

 

৮)          জনাব মোঃ মজিবুল হক (মজিব), চেয়ারম্যান ৮ নং করপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ তার বক্তব্যে বলেন যে,  তিনি সদ্য নৌকা প্রতিক নিয়ে জয়লাভ করা মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব এম এ আউয়াল মহোদয়কে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। উক্ত নির্বাচনে আওয়ামীলীগ থেকে জয়লাভ করায় তিনি গর্ববোধ করছেন।  তিনি উলেস্নখ করেন যে পূর্বের এমপি সাহেবরা আমাদের সাথে কোন মতবিনিময় সভা করেননি এবং রামগঞ্জের উন্নয়নে আমাদের সাথে কোনরম্নপ আলাপ আলোচনা করার প্রয়োজন মনে করেননি মর্মে তিনি সভায় দঃখ প্রকাশ করেন। তিনি আরো উলেস্নখ করেন যে ২০০১- ২০০৬ সালে উক্ত এলাকায় আওয়ামীলীগের ৭ টি লোক মারা যায়। একটি হত্যার ও বিচার হয়নি। তার এলাকায় আরেক সমস্যার নাম মাদক। মাদক হচ্ছে সকল অপকর্মের মূল। তিনি সভায় আরো বলেন যে সদ্য জয়লাভ করা এমপি মহোদয়কে আমরা সকলে সহযোগিতা করবো। যারা আওয়ামীলীগের নামে সন্তু্রাস ও চাদাবাজি করছে তাদের চিহ্নিত করতে হবে।  

(৯)      জনাব মোঃ মির্জা আজম, চেয়ারম্যান, ৯নং ভোলাকোট ইউনিয়ন পরিষদ জানান যে,  তার ইউনিয়নের আইনশৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। তিনি নব নির্বাচিত এমপি মহোদয়কে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

 

(১০)      জনাব মোঃ মোসত্মফা কামাল, চেয়ারম্যান, ১০নং ভাটরা ইউনিয়ন পরিষদ সভায় জানান যে, তাঁর ইউনিয়নের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি বর্তমানে ভাল। তিনি নব নির্বাচিত এমপি মহোদয়কে আমত্মরিকভাবে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

(১১)     অধ্যক্ষ, রামগঞ্জ সরকারী কলেজ এর প্রতিনিধি জানান যে, রামগঞ্জ সরকারী কলেজের আইনশৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

(১২)     অধ্যক্ষ, রামগঞ্জ মডেল কলেজ, রামগঞ্জ সভায় জানান যে, রামগঞ্জ মডেল কলেজের আইনশৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। উক্ত কলেজের কাছাকাছি একটি ইটভাটা রয়েছে। যার কারনে ছেলে মেয়েদের স্বাস্থ্য ঝুকির মধ্যে রয়েছে। হাপানরি এজমার মত মারাত্নক রোগ বালাই দেখা দেওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। অপর দিকে তিনি বলেন যে উক্ত কলেজে নতুন একটি ভবন দরকার।      

 (১৩)    প্রধান শিক্ষক, এই ইউ সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় জানান যে, আইনশৃংখলা মোটামুটি ভাল আছে।

(১৫)     জনাব হাজী সফিকুল ইসলাম, প্রাক্তন চেয়ারম্যান, ৩ নং ভাদুর ইউপি, রামগঞ্জ, তাঁর বক্তব্যে বলেন যে সদ্য জয় লাভ করায় মাননীয় এমপি মহোদয়কে তিনি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

 (১৪)    মেয়র, রামগঞ্জ পৌরসভা, রামগঞ্জ জানান যে, দীর্ঘ বছর পরে উক্ত এলাকায় আওয়ামীলীগের পÿ্য থেকে নৌকা প্রতিক নিয়ে বিজয় লাভ করায় মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব এম এ আউয়াল মহোদয়কে তিনি আমত্মরিকভাবে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।   

 (১৫)    কমান্ডার, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিল, রামগঞ্জ সভায় জানান যে ১৯৭৫ সালের  এর পরে আবার নৌকা প্রতিক আবার জয়লাভ করেছে এটা দেখে খুব ভাল লাগছে এবং তিনি গর্ববোধ করছেন। তিনি মাননীয় এমপি মহোদয়কে আমত্মরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। 

(১৬)     জনাব গোলাম সারওয়ার (মন্টু), ডেপুটি কমান্ডার, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিল, রামগঞ্জ, তাঁর বক্তব্যে বলেন যে ১৯৭৫ সালে এই এলাকায় নৌকা প্রতিক নিয়ে বিজয় লাভ করা হয়েছে। আর সুদীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়ে আবার নৌকা প্রতিক নিয়ে রামগঞ্জ উপজেলায় সদ্য জয়লভা করায় জনাব এম এ আউয়াল, মাননীয় এমপি মহোদয়কে আমত্মরিকভাবে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। তিনি বলেন যে আমাদের এই সভা টা হচ্ছে একটি মিনি পার্লামেন্ট। উাক্ত মিনি পার্লামেন্টের ১ম সভায় আপনি যোগদান করেছেন এই জন্য আপনাকে আবারো ধন্যবাদ জানাই। তিনি বলেন যে তিনি আশা পোষন করেন যে আগামী দিনের মিটিং গুলি ও মাননীয় এমপি মহোদয়ের সাথে আলাপ আলোচনা করে মিটিং এর তারিখ নির্ধারন  করতে হবে।                                          ঃ

 ২ঃ                                                                

(১৬)     জনাব শাহাজান (বাবুল) মোলস্না, চেয়ারম্যান, ইউসিসি, রামগঞ্জ সভায় জানান যে পূর্বের তুলনায় আইনশৃংখলা পরিস্থিতি অনেক ভাল। তিনি মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব এম এ আউয়াল মহোদয়কে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন কারন তিনি দীর্ঘদিন পর ৭৫ সালের পরে প্রথম নৌকা প্রতিক নিয়ে রামগঞ্জে বিজয় লাভ করেছেন।  

(১৭)     অফিসার ইন চার্জ (ওসি), রামগঞ্জ থানা জানান যে বর্তামনে পরীক্ষা সমুহে পুলিশের ফোর্স নিয়োজিত থাকে। উক্ত পরীক্ষার পর সভায় উলে­খিত মাদকের স্পটগুলিতে জোরালো অভিযান চালানো হবে। যদি সকল রাজনৈতিক সচেতনতা থাকে তাহলে Political Violence  হবে না। অপরদিকে অবৈধ অস্ত্রের তথ্য পেলে আইনশৃংখলা বাহিনীকে জানাতে হবে। তিনি নব নির্বাচিত মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব এম এ আউয়াল মহোদয়কে ধন্যবাদ জানান।

(১৮)     জনাব আ ক ম রম্নহুল আমিন ভাইস চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ রামগঞ্জ জানানা যে, রামগঞ্জ উপজেলায় পূর্বের তুলনায় এখন আইন শৃংখলা পরিস্থিতি ভালো। তিনি আজকের সভার প্রধান অতিথি জনাব এম এ আউয়াল, মাননীয় এম পি মহোদয়কে আমত্মরিকভাবে ধন্যবাদ জানান। কারন ১৯৭৫ সালের পর আর কেউ নৌকা প্রতিক নিয়ে রামগঞ্জে বিজয় লাভ করতে পারেনি।

১৯)      চেয়ারম্যাদন উপজেলা পরিষদ, রামগঞ্জ সভায় জানান যে, তিনি গত ২৯ ডিসেম্বর রাতে হার্টের রোগে আক্রামত্ম হন। ৯ দিন ঢাকা এপোলো হাসপাতালে থাকার পর তিনি  আলস্নাহর রহমতে সুস্থ্যতা লাভ করেন। বর্তমানে যারাই সন্ত্রাসী কর্মকান্ড ঘটায় তারাই রাজনৈতিক ফায়দা লুটার জন্য এই ধরনের কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়ে। দল মত  নির্বিশেষে সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। তিনি মাননীয় এম পি মহোদয়কে আমত্মরিকভাবে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

উপরোক্ত আলোচকদের আলোচনা শেষে নিম্নরূপ সিদ্ধামত্ম গৃহীত হয়ঃ                                            

ক্রমিক

সিন্ধামত্ম                              

বাসত্মবায়নে

০১

মাদকের বিরুদ্ধে অভিযানের অব্যাহত থাকবে। বর্ণিত মাদক স্পট গুলোতে পুলিশ টহল জোরদার করতে হবে। 

অফিসার ইন চার্জ (ওসি), রামগঞ্জ থানা।  

চেয়ারম্যান ইউনিয়ন পরিষদ (সকল)

০২

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানদের প্রধান করে মাদক বিরোধী কমিটি গঠন করতে হবে।

উপজেলা প্রশাসন, রামগঞ্জ।

চেয়ারম্যান, ইউনিয়ন পরিষদ (সকল)

সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ, রামগঞ্জ।

০৩

মাদকের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার জন্য সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে সম্পৃক্ত কওে র‌্যালী ও আলোচনা সভার আয়োজন করতে হবে। প্রাত্যাহিক এসেম্বলীতে মাদকের কুফল বিসয়ে আলোচনা করতে হবে।

উপজেলা প্রশাসন, রামগঞ্জ।

 সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ, রামগঞ্জ।

০৪

অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করতে হবে।

অফিসার ইন চার্জ (ওসি), রামগঞ্জ থানা।

চেয়ারম্যান ইউনিয়ন পরিষদ (সকল)

০৫

ইউনিয়ন পর্যায়ে কেরাম ও জুয়া খেলার আসর যেন বসতে না পাওে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। রাতে যে সকল দোকানে কেরাম বোর্ড খেলা হয় তাদের বিরম্নদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করতে হবে।

অফিসার ইন চার্জ (ওসি), রামগঞ্জ থানা।

চেয়ারম্যান ইউনিয়ন পরিষদ (সকল)

০৬.

ইভটিজিং (যৌন হয়রানী) প্রতিরোধে তাৎক্ষনিক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবেন। অবৈধ ভিসিডি/সিডি চালনাকারীদেও বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে।

অফিসার ইন চার্জ (ওসি)০, রামগঞ্জ থানা।

চেয়ারম্যান ইউনিয়ন পরিষদ (সকল)

০৭.

ডাকাতি/ছিনতাই/মোটর সাইকেল চুরি ইত্যাদি অপরাধ প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করতে হবে।

অফিসার ইন চার্জ (ওসি), রামগঞ্জ থানা।

চেয়ারম্যান ইউনিয়ন পরিষদ (সকল)

০৮

জঙ্গীবাদ যেন এই উপজেলায় তাদের কোন তৎপরতা চালাতে না পারে সে বিষয়ে সকলকে সজাগ থাকতে হবে।

অফিসার ইন চার্জ (ওসি), রামগঞ্জ থানা।

চেয়ারম্যান ইউনিয়ন পরিষদ (সকল)

          

পরিশেষে অন্য কোন আলোচ্য সূচী না থাকায় সভাপতি উপস্থিত সকল সম্মানিত সদস্যকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।   

 

মোহাম্মদ আবু ইউসুফ     

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

 এবং

সভাপতি

উপজেলা আইন শৃংখলা কমিটি

রামগঞ্জ, লক্ষ্মীপুর।

স্মারক নং- উঃ নিঃ অঃ/ রামগঞ্জ/ ৪-২০/২০১৬-                                             তারিখঃ ০৪/০২/২০১৬ খ্রিঃ।

            অনুলিপি সদয় অবগতি ও প্রৃয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রেরিত হলোঃ  

০১.        জনাব এম. এ আউয়াল, মাননীয় সংসদ সদস্য, ২৭৪, লক্ষ্মীপুর-১, বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ এবং

           মূখ্য উপদেষ্টা, উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটি, রামগঞ্জ, লক্ষ্মীপুর।

০২.       জেলা প্রশাসক, লক্ষ্মীপুর।

০৩.       চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, রামগঞ্জ, লক্ষ্মীপুর।

০৪.        ভাইস চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, রামগঞ্জ, লক্ষ্মীপুর।

০৫.       ভাইস চেয়ারম্যান (মহিলা), উপজেলা পরিষদ, রামগঞ্জ, লক্ষ্মীপুর।

০৬.       -----------------------------------------------------রামগঞ্জ, লক্ষ্মীপুর।      

০৭.        অফিস কপি।     

মোহাম্মদ আবু ইউসুফ     

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

 এবং

সভাপতি

উপজেলা আইন শৃংখলা কমিটি

রামগঞ্জ, লক্ষ্মীপুর।